দেখে নিন ইংরেজিতেও রচনা

শিশু শ্রমিক রচনা (Sisu Sromik Essay in Bengali) [PDF]

বাংলা প্রবন্ধ রচনার এক অন্যতম ওয়েবসাইট banglarachana.com এ আপনাকে স্বাগত। আজকের রচনার নাম “শিশু শ্রমিক“। নিয়মিত নতুন নতুন প্রবন্ধ রচনা পাওয়ার জন্য আমাদের follow করুন।

শিশু শ্রমিক রচনা

ভূমিকা:

“ভবিষ্যতের লক্ষ আশা মোদের মাঝে সন্তরে,
ঘুমিয়ে আছে শিশুর পিতা সব শিশুদের অন্তরে।”

প্রত্যেক শিশুই এক একজন ভবিষ্যতের মানব।এই শিশুদের মাঝেই ঘুমন্ত থাকে ভবিষ্যৎ মানবের সব শক্তি ও সম্ভাবনা।আজকের শিশু আগামী দিনে পরিচালনা করবে দেশ ও সমাজ।কিন্তু নানান কারণে আজ শিশুরা উপযুক্ত পরিচর্যা থেকে বঞ্চিত।

সঠিক শিক্ষা গ্রহণ করার সময় বাল্য কাল,তার ভবিষ্যৎ শক্তি বিকশিত হাওয়ার সময় কিন্তু খাদ্যের অভাবে জীবিকার তাগিদে তারা বাধ্য হচ্ছে হাড়ভাঙা শ্রমদানে।শুধুমাত্র আমাদের দেশে নয় সারা বিশ্বে শিশু শ্রমিকের সমস্যা এক বিরাট গুরুত্বপূর্ন সমস্যা।

কারা শিশু শ্রমিক:

চোদ্দো বছর বয়সের নীচে ছেলেমেয়েরা শিশু হিসেবে গণ্য।চোদ্দো বছর বয়সের নীচে গরীব অসহায় ছেলেমেয়েরা নিতান্ত পেটের জ্বালায় জীবিকা অর্জনের তাগিদে খেতে খামারে,লোকের বাড়ির কাজে,দোকানে রেস্তোরায় প্রভৃতি কাজে নিযুক্ত হয়ে থাকে।এইসব অপরিণত শ্রমজীবীদের বলা হয় শিশুশ্রমিক।

সামাজিক ও অর্থনৈতিক কারণ:

আমাদের দেশে দারিদ্র্যসীমার নীচে বসবাসকারী লোকের সংখ্যা এক বিশাল অঙ্কের।পেটের জ্বালা ও অভাব এই দরিদ্র পরিবারের ছেলে মেয়েদের কম বয়সেই কাজে নিযুক্ত হতে বাধ্য করে। সাম্প্রদায়িকতা, রাজনৈতিক বিপর্যয়,পিতা মাতার নৃশংস আচরণ এই সমস্যার জন্য অনেকাংশে দায়ী।

গ্রামাঞ্চলের অধিকাংশ পরিবারের শিক্ষা সম্পর্কে অসচেতনতা ও অনেক সময় অভিভাবকরা তাদের আর্থিক সংকটের কারণে তাদের ছেলেময়েদের স্কুলে পাঠাতে ব্যর্থ হয়ে কাজে নিযুক্ত করে দেয়।এছাড়াও আমাদের দেশে পিতৃ-মাতৃহীন অনাথ শিশুরাই অধিক হারে শিশুশ্রমের সাথে যুক্ত। বেঁচে থাকার জন্য বাধ্য হয়ে তারা এ পথে পা বাড়ায়।

শিশু শ্রমিকের পরিণাম:

শিশুদের কাজ করানো একটি মানবতাবিরোধী কাজ। শুধু আমাদের দেশেই নয় যে কোনো দেশের জন্যই এর পরিণতি ভীষণ ভয়াবহ।জনসংখ্যা বৃদ্ধি ও অর্থনৈতিক অবস্থার দিনদিন অবনতির ফল হিসেবে শিশু শ্রমিকের সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে।নামমাত্র সামান্য বেতন দিয়ে শিশুদের অনেক পরিশ্রমের কাজ করিয়ে নেয় কিছু স্বার্থপর মানুষ।

অতিরিক্ত শ্রমদানের কারণে শিশুদের স্বাস্থ্য নষ্ট হয়, তারা অপুষ্টিজনিত নানা রোগের শিকার হয়।কলকারখানায় কাজ করা শিশুরা রাসায়নিক পদার্থ ও দূষিত পরিবেশের সংস্পর্শে আসে ফলে কম বয়সেই চোখের অসুখ,ফুসফুসের নানা সমস্যা,ক্যান্সার প্রভৃতি রোগের শিকার হয়।দেশের ভবিষ্যৎ শিশুদের জীবন অতিরিক্ত শ্রম দানের ফলে এভাবেই অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে।

সরকারি উদ্যোগ:

সমাজের নিচু স্তরের অবহেলিত ও শোষিত শিশু শ্রমিকের সমস্যাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য ও সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্যে ১৪ নভেম্বর আন্তর্জাতিক শিশু দিবস হিসেবে পালন করা হয়।শিশু শ্রমিক প্রতিরোধের জন্য সরকার অনেক রকম আইন প্রণয়ন করেছে।

এই শিশু শ্রমিকের সমস্যা সমাধানের জন্য সবার আগে প্রয়োজন সঠিক শিক্ষার প্রসার,সচেতনতা বৃদ্ধি ও দরিদ্র বিমোচন।এছাড়াও প্রয়োজন জনসংখ্যা বৃদ্ধি আয়ত্তে আনা।শিশু শ্রমিক প্রতিরোধের জন্য সরকারি আইনগুলি যথাযথ কার্যকরী করার দিকেও যথেষ্ট নজর রাখা দরকার।কেবল মাত্র আইন দিয়েই সকল সমস্যার বাস্তব সমাধান সম্ভব নয় তাই সকলকে একক ভাবে প্রতিজ্ঞা বদ্ধ হতে হবে শিশু শ্রমিক দূরীকরণে।

উপসংহার:

মানবতার বিকাশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে শিশুশ্রম রোধ করা একান্ত প্রয়োজন।শিশু শ্রমিকের সমস্যা সমাধানের জন্য অর্থ ব্যয়ের অক্ষমতার চেয়ে আমাদের সদিচ্ছা ও আন্তরিকতার অভাব ই অনেকাংশে দায়ী।আশা করা যায় সরকার ও সমাজের সঠিক প্রচেষ্টায় ভবিষ্যতে এই হতভাগ্য শিশুর দল ফিরে পাবে তাদের স্বাভাবিক জীবন।


“শিশু শ্রমিক” রচনাটি আপনার কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। বানান ভুল বা যেকোনো ভুল এড়িয়ে না গিয়ে কমেন্ট করে আমাদের শুধরে নেওয়ার সুযোগ করে দিন। নিয়মিত নতুন নতুন প্রবন্ধ রচনা পাওয়ার জন্য আমাদের follow করুন।ধন্যবাদ।

আর পড়ুন

Paribesh Dushan o Tar Protikar
বাংলার উৎসব
গাছ আমাদের বন্ধু
বিজ্ঞান ও কুসংস্কার
স্বামী বিবেকানন্দ রচনা

উল্লেখ: Child labour – Wikipedia

Print Friendly, PDF & Email
English Essay, Autobiography, Grammar, and More...

Rakesh Routh

আমি রাকেশ রাউত, পশ্চিমবঙ্গের ঝাড়গ্রাম জেলায় থাকি। মেকানিকাল বিভাগে ডিপ্লোমা করেছি, বাংলায় কন্টেন্ট লেখার কাজ করতে ভালোবাসি।তাই বর্তমানে লেখালেখির সাথে যুক্ত।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

 

Recent Content